1. admin@chattogramsangbad.net : chattomsangba :
  2. editor@chattogramsangbad.net : editor :
সরকারের খায়েশ হয়েছে ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার: মির্জা ফখরুল - দৈনিক চট্টগ্রাম সংবাদ
February 24, 2024, 3:12 am

সরকারের খায়েশ হয়েছে ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার: মির্জা ফখরুল

সংবাদ ডেস্ক
  • আপডেট সময় : Saturday, March 11, 2023
  • 67 বার পড়েছে

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, ২০১৪ ও ২০১৮ সালের মতো একই কায়দায় ২০২৩ সালের নির্বাচন করতে চায় সরকার। কিন্তু জনগণ এবার তা হতে দেবে না। উত্তাল তরঙ্গ সৃষ্টি করে জনগণ এদের পরাজিত করবে। বর্তমান সরকারের ২০৪১ সাল পর্যন্ত ক্ষমতায় থাকার খায়েশ জেগেছে। সেই নীলনকশা নিয়েই সরকার এগোচ্ছে।

শনিবার(১১ মার্চ) দুপুরে রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে এক মানববন্ধনে অংশ নিয়ে মির্জা ফখরুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

আজ বেলা ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত রাজধানী ঢাকায় যাত্রাবাড়ী থেকে টঙ্গীর আবদুল্লাহপুর ব্রিজ পর্যন্ত ২৪ কিলোমিটার সড়কে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়। এ ছাড়া সারা দেশে সব জেলা ও মহানগরে একযোগে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করেছে বিএনপি।

নয়াপল্টনে মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম ও উত্তর বাড্ডার সুবাস্তু নজরভ্যালি মার্কেটের সামনে মানববন্ধনে স্থায়ী কমিটির সদস্য খন্দকার মোশাররফ হোসেন প্রধান অতিথি ছিলেন। সরকারের সমালোচনা করে মির্জা ফখরুল বলেন, ‘যাদের একমাত্র কাজ হচ্ছে এ দেশের মানুষকে শোষণ করা। সেই শোষণের টাকা দিয়ে পুঁজি সঞ্জিবিত করা। এটা আমার কথা নয়। আজকে দেশে, আন্তর্জাতিকভাবে নামকরা পত্রিকাগুলো বলতে শুরু করেছে। গার্ডিয়ান বলছে, বাংলাদেশের উন্নয়নের ফানুস দুর্নীতির কারণে চুপসে গেছে।’

তত্ত্বাবধায়ক সরকার প্রসঙ্গে বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘এ ব্যাপারে একটু কথা বলতে চাই। আজকে মন্ত্রীরা বলেন, ওটা (তত্ত্বাবধায়ক) চলে গেছে কবরস্থানে। তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধীন চারটা নির্বাচন হয়েছিল শান্তিপূর্ণভাবে এবং সবাই মেনে নিয়েছিল। কিন্তু অসৎ উদ্দেশ্যে শুধু ক্ষমতায় টিকে থাকার জন্য এখন দলীয় সরকারের অধীন নির্বাচনের ব্যবস্থা করেছেন।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আপনারা ১৯৯৬ সালে জামায়াত এবং জাতীয় পার্টিকে নিয়ে তত্ত্বাবধায়ক সরকারের জন্য ১৭৩ দিন হরতাল করেছিলেন। গানপাউডার দিয়ে শেরাটনের সামনে বাস পুড়িয়ে ১১ জনকে হত্যা করেছিলেন। এখন শুধু কথায় বলেন, বিএনপির অগ্নিসন্ত্রাস বন্ধ করার জন্য নাকি আপনারা আমাদের পাহারা দেন। আপনারা সেদিন ১৭৩ দিন অগ্নিসন্ত্রাস করেছেন। লগি-বইঠা দিয়ে মানুষকে পিটিয়ে হত্যা করেছেন।’

পঞ্চগড়ে আহমদিয়া জামাতের বার্ষিক জলসায় হামলার ঘটনার জন্য সরকারকে দায়ী করেন মির্জা ফখরুল ইসলাম। তিনি বলেন, ‘আমাদের সামনে আর কোনো বিকল্প পথ নেই। অনেক দুষ্টামি করছে। অনেক রকমের চক্রান্ত শুরু করেছে আবার। পঞ্চগড়ে সাম্প্রদায়িক ঘটনা সৃষ্ট করার জন্য তারা (সরকার) অনুমতি দিয়েছে, তারা নীরব ভূমিকা পালন করেছে। আবার সেই ঘটনার পর বিএনপির ১৮১ নেতাকর্মীকে গ্রেফতার করেছে। আমরা এর তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি। এভাবে সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করে দেশের মানুষকে বোকা বানানো যাবে না। গায়েবি মামলা দিয়ে টিকে থাকা যাবে না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘মানুষের ধৈর্যেরও সীমা আছে। মানুষও দেখবে এভাবে কতদিন তাদের বোকা বানিয়ে আপনারা ক্ষমতায় টিকে থাকতে চান। তার পর সব মানুষ একসঙ্গে জেগে উঠে একেবারে উত্তাল তরঙ্গের মতো আপনাদের ভাসিয়ে নিয়ে যাবে। সেদিন পালানোর কোনো পথ খুঁজে পাবেন না।’

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘এ আন্দোলনের প্রথম থেকেই আমরা শান্তিপূর্ণভাবে আন্দোলন করছি জনগণকে সঙ্গে নিয়ে। এ জন্য আপনাদের খুব গাত্রদাহ হচ্ছে। উসকানি দেওয়ার চেষ্টা করছেন, বারবার উত্তেজিত করার চেষ্টা করছেন। জনগণ শুরু করেছে আন্দোলন। এ আন্দোলনে তারা জয়ী এবং তার পরেই ঘরে ফিরে যাবে। আমরা সংঘাতে যেতে চাই না। জনগণকে সঙ্গে নিয়ে আমরা যে শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করছি, আপনারা সেটি মেনে নিন, ১০ দফা মেনে নিন। অবিলম্বে পদত্যাগ করুন, সংসদ ভেঙে দিন এবং তত্ত্বাবধায়ক সরকারে হাতে ক্ষমতা হস্তান্তর করেন।’

ভারতের আদানি গোষ্ঠীর সঙ্গে বিদ্যুতের অসম চুক্তির সমালোচনা করেন মির্জা ফখরুল। তিনি বলেন, এটা বাংলাদেশের স্বার্থবিরোধী চুক্তি। এ চুক্তি কোনোমতেই বাংলাদেশের পক্ষে যেতে পারে না। এখন আন্তর্জাতিকভাবেও প্রশ্ন উঠেছে— কীভাবে সরকার এই চুক্তি করল। তারা এটা করেছে এই জন্য যে তারা ঘুস দিয়ে ক্ষমতায় টিকে থাকতে চায়।

মানববন্ধনে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আবদুস সালাম। মানববন্ধনে বিএনপিসহ এর অঙ্গসহযোগী সংগঠনের হাজার হাজার নেতাকর্মী ব্যানার-ফেস্টুন নিয়ে অংশ নেন।

শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আরও সংবাদ
© All rights reserved © 2022
Customized By chattogramsangbad